প্রবন্ধ

ইমাম জাফর সাদেক (আঃ) এর সাথে আবু হানিফার (রহঃ) কথোপকথন।

ইমাম জাফর সাদেক (আঃ) আবু হানিফার (রহঃ) দিকে ফিরে বললেনঃ শুনলাম এই আয়াতটিকে ثُمَّ لَتُسْأَلُنَّ يَوْمَئِذٍ عَنِ النَّعِيمِ অর্থাৎ, “তারপর অবশ্যই সেদিন তোমাদেরকে নেয়ামত সম্পর্কে প্রশ্ন করা হবে।” (সুরা তাকাসুরঃ ১০২/৮ )তুমি এই ভাবে তাফসির করছো যে,আল্লাহ কিয়ামতের দিন প্রত্যেক ব্যক্তিকে পৃথিবীতে যেসব তৃপ্তিদায়ক খাবার খেয়েছে বা পান করেছে সে ব্যাপারে কৈফিয়ত তলব করবেন।

হযরত আবু হানিফার (রহঃ)বললেনঃ ঠিকই শুনেছেন; আয়াতটিকে আমি ওভাবেই তাফসির করেছি।

তখন ইমাম জাফর সাদেক আঃ বললেনঃ যদি কোন ব্যক্তি তোমাকে তার নিজের গৃহে আমন্ত্রণ করেন এবং অনেক তৃপ্তিদায়ক খাবার খেতে দেন। অতঃপর তিনি যদি তোমার আপ্যায়ন সম্পর্কে বড়াই করে তাহলে ঐ ব্যক্তিকে তুমি কিভাবে দেখবে?

হযরত আবু হানিফার (রহঃ) বললেনঃ নিঃসন্দেহে তিনি অহংকারী ও কৃপণ ব্যক্তি ।

তখন ইমাম জাফর সাদেক আঃ বললেনঃ তাহলে খোদা কি অহংকারী বা কৃপণ? যে তিনি কিয়ামতের দিন আমাদের যা কিছু খেতে দিয়েছেন সে সম্পর্কে কৈফিয়ত তলব করবেন?

হযরত আবু হানিফার (রহঃ) বললেনঃ তাহলে কোরআনে যে নিয়ামত সম্পর্কে কৈফিয়ত তলব করার কথা বলা হয়েছে সেটা কি?

ইমাম জাফর সাদেক আঃ বললেনঃ কোরআনে উল্লেখিতনিয়ামত হলো আহলে বাইত আঃ এর বেলায়েত বা নেতৃত্ব । কিয়ামতের দিন আমাদের কর্তৃত্ব সম্পর্কে প্রশ্ন করা হবে।*

গ্রন্থসূত্রঃ- মুস্তাদরাকুল ওয়াসাইল ১৬ খন্ড, পৃষ্ঠাঃ ২৪৭।


সিপাহসালার ইনস্টিটিউশন | আগস্ট ২০২০এস এইচ হক

মতামত দিন