প্রবন্ধ

মুয়াবিয়া ইবনে আবু সুফিয়ান কি কাতিবে ওহী?

মুনাফিক আবু সুফিয়ানের পুত্র এবং ওহুদের যুদ্ধে নবীজির প্রাণপ্রিয় চাচা হযরত আমির হামজা রাঃ এর শাহাদতে উল্লাসকারি ও কলিজ্বা চিবিয়ে খাওয়া মহিলা হিন্দার সন্তান উমাইয়া রাজ শাসক মূয়াবিয়াকে নিয়ে নতুন করে লেখার তেমন ইচ্ছা ছিলো না। কেননা মূয়াবিয়ার অপকর্ম নিয়ে অধমের কারবালার করুণ কাহিনি বইয়ে ৩৬ পৃষ্টার একটি বড় অধ‍্যায় বিস্তারিত লেখা আছে। কিন্তু মুয়াবিয়ার অতিভক্ত সেজে যেসব দরবারী পীর মুরিদ ইদানিং খুব বেশি লাফালাফি করছে এবং পাকিস্তান ভিত্তিক সুন্নী দাওয়াতি ইসলামী দল মুয়াবিয়ার উরস পালন করছে। এমতাবস্থায় সত‍্য জেনে চুপ থাকা অন‍্যায়। তাই মুয়াবিয়ার অপকর্ম ও মুয়াবিয়া পীতির বিপক্ষে কিছু লিখতে বাধ‍্য হচ্ছি।

আমীরে মুয়াবিয়া মুসলমান হয়েছেন মক্কা বিজয়ের পর এবং এটাই প্রসিদ্ধতম মত। অন্যান্য সাহাবীদের তুলনায় উনি দয়াল নবীজির সাহচর্য পেয়েছেন খুবই কম। তর্কের খাতিরে ধরে নিলাম মূয়াবিয়া কাতিবে ওহী, এতে এতো লাফালাফির কি আছে? যারা ইসলামি ইতিহাস নিয়ে একটু হলেও ঘাটাঘাটি করেন তাদের সবাই জানেন – কাতিবে ওহীদের প্রধান ছিলেন হযরত যায়েদ বিন সাবেত (রাঃ)। যিনি কাতিবে ওহীদের প্রধান তাকে নিয়ে কোন বক্তব্য নেই, তার ফযীলত নিয়ে কোন আলোচনাও শুনি না আর যিনি মক্কা বিজয়ের পর সুপারিশক্রমে মুসলমান হয়েছেন তার কাতিবে ওহী হওয়া নিয়ে অতি উৎসাহী সুন্নীদের এতো মাথা ব্যথা কেন?

মুনাফিকদের সর্দার আবদুল্লাহ ইবনে উবাই প্রথম দিকে কাতেবে ওহি বা ওহি লেখক ছিলেন। অথচ এই কথিত কাতেবে ওহি আবদুল্লাহ ইবনে উবাইকে মহান আল্লাহ তায়ালা মুনাফিক চিহ্নিত করে আল কোরআনে সূরা মুনাফিকুন নাযিল করেছেন। আচ্ছা মুনাফিক মারওয়ান ইবনে হাকামও একজন কাতেবে ওহি ছিলেন কিন্তু তাকে তো সাহাবীর মর্যাদা কেউ দেয় না। সুতরাং কাতেবে ওহি হয়ে লাভ নেই, যদি কুকর্ম না ছাড়া হয়। অন‍্যায় করেও কেউ যদি পার পেয়ে যায় বা অন‍্যায় করেও কেউ যদি সম্মানিত হয় তাহলে ধর্মকর্মের কি দরকার?

সুতরাং কেউ আহলে বাইতের সাথে শত্রুতা করে, মানুষ হত‍্যা করে,চুক্তি ভঙ্গ করে এবং ক্ষমতার অপব‍্যবহার করে প্রকৃত সাহাবী হতে পারে না। যা উমাইয়া রাজশাসক মুয়াবিয়া ও তার রাজ পরিবারবর্গ করেছে। প্রকৃত সাহাবীগণ আমাদের নিকট স্মরণীয় ও বরণীয় শ্রদ্ধার পাত্র। কিন্তু সাহাবী বেশে কোন মুনাফিক আমাদের শ্রদ্ধার পাত্র হতে পারে না। জেনে শুনে সত‍্য গোপন করা উচিত নয়। জেনে শুনে নির্ভয়ে সত‍্য বলা কোন শিয়া বা সুন্নীর ব‍্যাপার নয়। বরং এটা প্রকৃত মোমিনের ইমানী দায়িত্ব, নবীজি ও আহলে বাইতের ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ। ওয়াস সালাম।

লেখক
মোহাম্মদ তফিজ উদ্দিন কাদেরী

মতামত দিন